WELCOME TO MY SITE, In All Your Troubles And Agonies Be Patient And Trust In The Goodness of ALLAH Who Alone Can Relieve You And Give Real Happiness And Peace. AL-QURAN. http://www.technodesh.com, http://www.engineerjamal.com, http://picturemuseum.blogspot.com and More...

নাপাসহ ৫১ ওষুধ নিষিদ্ধঃ
ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর বেশ কয়েকটি কোম্পানির উৎপাদিত ৫১টি ওষুধের রেজিস্ট্রেশন বাতিল করেছে। জনগণকে এসব ওষুধ না কেনার অনুরোধ করা হয়েছে। ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর দেশের খ্যাতিসম্পন্ন ওষুধ কোম্পানিসহ বেশ কিছু ওষুধ কোম্পানির ৫১টি ওষুধ নিষিদ্ধ করেছে। রেনাটা, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, বেক্সিমকো, অপসোনিন, দ্য ইবনে সিনাসহ বেশ কয়েকটি কোম্পানির উৎপাদিত ৫১টি ওষুধের রেজিস্ট্রেশন বাতিল করেছে।

প্যারাসিটামল, পায়োগ্লিটাজন ও রসিগ্লিটাজন গ্রুপের বাতিলকৃত ৫১টি ওষুধসমূহের উৎপাদন, ক্রয়, বিক্রয়, বিতরণ, মজুদ এবং প্রদর্শন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। জনসাধারণকে এসব ওষুধ ব্যবহার না করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়েছে।
অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও লাইসেন্সিং অথরিটি (ড্রাগস) মেজর জেনারেল মো. মোস্তাফিজুর রহমান এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

নিষিদ্ধ ঘোষিত ওষুধসমুহ হলোঃ

রেনাটা লিমিটেডঃ
মিরপুর ও রাজেন্দ্রপুরের প্যারাডট ট্যাবলেট, মিরপুরের পায়োগ্লিন ৩০ ট্যাবলেট।

স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালসঃ
এইস সফট ট্যাবলেট, টস-৩০ ট্যাবলেট, টস-৪৫ ট্যাবলেট, সেনসুলিন ২ ট্যাবলেট।

বেক্সিমকো ফার্মাঃ
নাপা সফট ট্যাবলেট, পায়োগ্লিট ৩০ ট্যাবলেট, পায়োগ্লিট ৪৫ ট্যাবলেট।

ড্রাগ ইন্টারন্যাশনালঃ
ফিভিমেট ট্যাবলেট, পায়োজেনা ৩০ ট্যাবলেট, রোমেরল ২ ট্যাবলেট, রোমেরল ৪ ট্যাবলেট।

দ্য একমি ল্যাবরেটরিজঃ
ফাস্ট-এম ট্যাবলেট।

বায়োফার্মাঃ
এসিটা সফট ট্যাবলেট, প্রিগলিট-৩০ ট্যাবলেট অপসো স্যালাইনের জিসেট ট্যাবলেট।

অপসোনিন ফার্মাঃ
রেনোমেট ট্যাবলেট, পাইলো ৩০ ট্যাবলেট।

এসকেএফঃ
টেমিপ্রো ট্যাবলেট।

ইউনিমেড এন্ড ইউনিহেলথঃ
একটোস ৩০ ট্যাবলেট।

এসিআই লিমিটেডঃ
ডায়াট্যাগ ৪৫ ট্যাবলেট।

জেনারেল ফার্মাসিউটিক্যালসঃ
রসিগ্লিট ২ ট্যাবলেট, রসিগ্লিট ৪ ট্যাবলেট।

এরিস্টোফার্মাঃ
গ্লুকোরস ২ ট্যাবলেট, গ্লুকোরস ৪ ট্যাবলেট, গ্লুকোজন ৩০ ট্যাবলেট।

ডেল্টা ফার্মাঃ
রসিট-৪ ট্যাবলেট।

মিল্লাত ফার্মাঃ
পায়োট্যাব ৩০ ট্যাবলেট।

ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালসঃ
পায়োডার ৩০ ট্যাবলেট।

কেমিকো ফার্মাসিউটিক্যালসঃ
ওগলি ৩০ ট্যাবলেট, ট্যাজন-৪ ট্যাবলেট।

ডক্টরস কেমিক্যাল ওয়ার্কস লিমিটেডঃ
পায়োজন ৩০ ট্যাবলেট।

অ্যালকো ফার্মাঃ
পায়োলিট ৩০ ট্যাবলেট।

দ্য হোয়াইট হর্স ফার্মাঃ
লিট-৩০ ট্যাবলেট।

আদ-দ্বীন ফার্মাসিউটিক্যালসঃ
পিজোবেট ৩০ ট্যাবলেট।

নাভানা ফার্মাসিউটিক্যালসঃ
ডায়াটাস ৩০ ট্যাবলেট।

শরীফ ফার্মাসিউটিক্যালসঃ
প্যারামিন ট্যাবলেট, পিগজন ৩০ ট্যাবলেট।

সোমাটেক ফার্মাসিউটিক্যালসঃ
একটেল-এম ট্যাবলেট।

লিওন ফার্মাসিউটিক্যালসঃ
মেটেস ট্যাবলেট।

জিসকা ফার্মাসিউটিক্যালসঃ
পামিক্স এম ট্যাবলেট।

নোভেল্টা বেস্টওয়ে ফার্মাসিউটিক্যালসঃ
নরসফট ট্যাবলেট।

প্যাসিফিক ফার্মাসিউটিক্যালসঃ
পিগ্লিট ৩০ ট্যাবলেট, রগ্লিট ৪ ট্যাবলেট।

মেডিমেট ফার্মা লিমিটেডঃ
ডায়াপায়োট্যাব ৩০ ট্যাবলেট।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ওষুধ নিয়ন্ত্রণ কমিটির ২৪৪ তম সভায় এসব ওষুধের রেজিস্ট্রেশন বাতিল করা হয়।

সংশ্লিষ্ট কোম্পানি কর্তৃপক্ষকে এসব ওষুধ নিজস্ব চ্যানেলের মাধ্যমে বাজার হতে প্রত্যাহার করে তার পরিমাণসহ অধিদপ্তরকে জানানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে রেজিস্ট্রেশন বাতিলকৃত ওষুধসমূহের উৎপাদন, ক্রয়-বিক্রয়, বিতরণ, মজুদ এবং প্রদর্শন সম্পূর্ণরুপে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

বিঃদ্রঃ আমাদের পোষ্ট গুলো যদি আপনার ভাল লাগে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। তাহলে আরও ভাল পোষ্ট নিয়ে হাজির হব।

0 facebook, blogger :

 
Top